ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খানের ১৫তম প্রয়াণ দিবস আজ (ভিডিও)

ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খানের ১৫তম প্রয়াণ দিবস আজ (ভিডিও)

ভারতের উচ্চাঙ্গ শাস্ত্রীয় সঙ্গীত জগতে এক অবিস্মরণীয় নাম সানাই-সম্রাট ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খান। সানাইকে উচ্চাঙ্গ সঙ্গীতের মর্যাদায় অধিষ্ঠিত করেছেন এই অমর শিল্পী।  তিনি ১৯১৬ সালের ২১ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন। বাবা পয়গম্বর খান ও মা মিঠানের দ্বিতীয় সন্তান বিসমিল্লাহ খান। তাকে প্রথমে ‘কামরুদ্দিন’ বলে ডাকা হতো। তবে তিনি ‘বিসমিল্লাহ খান’ নামেই বিশ্বব্যাপী পরিচিত। তার পূর্বপুরুষেরা বিহারের ডুমরাও রাজ্যের রাজসঙ্গীতজ্ঞ ছিলেন। বিসমিল্লাহ খানের সঙ্গীত গুরু ছিলেন প্রয়াত আলীবকস্ বিলায়াতু। তিনি ছিলেন বারাণসীর বিশ্বনাথ মন্দিরের সানাইবাদক।

বিসমিল্লাহ খান ১৯৩৭ সালে কলকাতায় অল ইন্ডিয়া মিউজিক কনফারেন্সে সানাই বাজিয়ে ভারতীয় সঙ্গীতের মূল মঞ্চে নিয়ে আসেন সানাইকে। ভারতের প্রথম প্রজাতন্ত্র দিবসে বিসমিল্লাহ খান ১৯৫০ সালের ২৬ জানুয়ারিতে দিল্লীর লালকেল্লায় তার কণ্ঠকে মধুরতা ঢেলে রাগ কাফি বাজিয়ে মুগ্ধ করেছিলেন ভারতবাসীকে। পরবর্তী সময়ে, প্রতিবছর ভারতীয় স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে সানাই ও বিসমিল্লাহ খান অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে গিয়েছিল। পণ্ডিত নেহেরুর সময় থেকেই এই ধারা অব্যাহত।

বিসমিল্লাহ খান চলচ্চিত্রেও কাজ করেছেন। সানাই বাজিয়েছেন ‘সনাদি অপন্যা’ ছবিতে। তিনি বিখ্যাত চলচ্চিত্রকার সত্যজিৎ রায়ের ‘জলসাঘর’ছবিতে অভিনয়ও করেছেন। চলচ্চিত্র পরিচালক গৌতম ঘোষ তার জীবন এবং তার কর্মের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণও করেছিলেন।

ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খান তার সঙ্গীতের মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে। তিনি আফগানিস্তান, ইউরোপ, ইরান, ইরাক, কানাডা, পশ্চিম আফ্রিকা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন, জাপান, হংকংসহ পৃথিবীর প্রায় সকল দেশেই সানাইয়ের বাজিয়েছেন। তবে এত সুনাম অর্জন থাকা সত্ত্বেও অত্যন্ত সাধারণ জীবনযাপন করতেন ওস্তাদ খান।

তিনি ভারতের চারটি সর্বোচ্চ বেসামরিক পদকে সম্মানিত হয়েছেন। খান সাহেব ২০০১ সালে ‘ভারতরত্ন’, ১৯৮০ সালে ‘পদ্মবিভূষণ’, ১৯৬৮ সালে ‘পদ্মভূষণ’, ও ১৯৬১ সালে ‘পদ্মশ্রী’ খেতাবে ভূষিত হন। এ ছাড়াও তিনি ‘সঙ্গীত নাটক একাডেমি পুরস্কার’ ও ‘তানসেন পুরস্কার’ পান। ১৯৯২ সালে তাকে ইরান সরকার ‘তালার মৌসিকী’ পদকে ভূষিত করেন। তাকে বানারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়, বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় ও শান্তি নিকেতন সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি প্রদান করেন।

উচ্চাঙ্গশাস্ত্রীয় সঙ্গীত জগতের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতজ্ঞ ২০০৬ সালের আজ (২১ আগস্ট) বারাণসীর হেরিটেজ হসপিটালে ৯০ বছর বয়সে মারা যান। ওস্তাদ বিসমিল্লাহ খানের ১৫তম প্রয়াণ দিবস আজ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here