নারী নির্মাতাদের সুখ দুঃখ

নাট্যনির্মাতা হিসেবে পুরুষ ও নারী দুজনই সমান সুবিধা পান, এমনটাই মনে করেন নির্মাতা মতিয়া বানু শুকু। নারী হিসেবে যেটুকু পান, তা সামান্যই। যেমন নারী নির্মাতার সঙ্গে অভিনেত্রীরা কাজ করে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। এই সুবিধা ছাড়া খুব বেশি কিছু নেই। নারী হিসেবে সব জায়গায় যে ধরনের সমস্যা থাকে, সেটা নির্মাণের বেলায়ও আছে। এটা নিয়ে খুব বেশি মাখা ঘামান না। কয়েক বছর ধরে নানা ধারাবাহিক ও একক নাটক নির্মাণ করছেন তিনি। মাতিয়া বানু শুকুর লেখা ধারাবাহিক নাটকগুলো হলো চুপকথা, অপরাজিতা ও প্রজ্ঞা পারমিতা।

মতিয়া বানু শুকু একটি ধারাবাহিক লিখেছেন ও নিজেই পরিচালনা করেছেন । ধারাবাহিকটির নাম ধন্যি মেয়ে। ১৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালে এই নাটকটি প্রচারিত হয়েছিল  চ্যানেল নাইনে।

নাটকে ‘ধন্যি মেয়ে’ চরিত্রে অভিনয় করছেন স্বাগতা। একটা কিনলে একটা ফ্রি, চুপকথা  নাটকেও  অভিনয় করছেন স্বাগতা ।

‘ধন্যি মেয়ে’নাটকে আরও অভিনয় করছেন আবুল হায়াত, সামিয়া, স্বর্ণা, শ্যামল মাওলা, দ্বীপান্বিতা হালদার, ডলি জহুর, শিল্পী সরকার প্রমুখ।

তিনি  নিজের কাজ প্রসঙ্গে বললেন, ‘উৎপাদনের জায়গায় কাজ কিন্তু ভাগ করা। যেমন ছেলেরা মাঠে ধান লাগাবে আর মেয়েরা সেই ধান বাড়িতে প্রক্রিয়াজাত করবে। এটাই প্রকৃতির নিয়ম। তাই বলে মেয়েরা মাঠে ধান লাগাতে পারবে না বা ছেলেরা ঘরে কোনো কাজ করতে পারবে না? আমি মনে করি অবশ্যই পারবে। নির্মাণের ব্যাপারটি তেমনই। চাইলে করা যায়। তবে কাজ যেখানেই করুক, নারী ও পুরুষের কাজের ছাপ আলাদা। তা থেকে যায়।’

নারী দিবস নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আসলে এসব দিবসে খুব বেশি বিশ্বাসী নই। নারীবাদী চিন্তাভাবনায়ও না। এই ব্যাপারগুলো আমার কাছে যন্ত্রণাদায়ক মনে হয়। আলাদা করে পুরুষের জন্য কেন দিবস নেই?’

আজ ৫ সেপ্টেম্বর । গুণী এই নাট্য পরিচালকের জন্মদিন। মতিয়া বানু শুকুর জন্মদিনে বিনোদন প্রতিদিন পরিবারের পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here