নায়ক ওয়াসীম আর নেই

0
70

বাজার থেকে পয়সা বাঁচিয়ে আপনার ছবি দেখেছি ওয়াসিম ভাই! আপনার জন্যেই সিনেমামুখী হয়েছিলাম!আপনার প্রযোজিত শেষ ছবির সবগুলো গান আমি লিখেছিলাম। আপনি আমাকে ওস্তাদ বলে সম্বোধন করতেনআর আমি লজ্জায় কুঁকড়ে যেতাম!আপনার সাথে শেষ দেখা বিটিভিতে–বছর দুয়েক আগে। যাবার সময় বললেন– মিল্টন দেখা হবে! ভালো থেকোআপনি আর নেই বলে–আমি ভালো নেই উস্তাদ!আল্লাহর কাছে দুহাত তুলে প্রার্থনা– হে আল্লাহ্ ওয়াসিম ভাইকে ভালো রেখো, শান্তিতে রেখো — নায়ক ওয়াসীমের শোকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এভাবেই লিখেছেন বরেণ্য গীতিকবি ও সংগীত পরিচালক মিল্টন খন্দকার।

শনিবার দিবাগত রাত (১৮ এপ্রিল) সাড়ে ১২টার দিকে তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি জমান ওয়াসীম।

অনেক দিন ধরেই ওয়াসিম ভাই বার্ধক্যজনিত নানা রোখে ভুগছিলেন। তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন রাজধানীর শাহাবউদ্দিন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

কসময়ের দর্শকপ্রিয় এই নায়ক বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ হয়ে বাসাতেই ছিলেন। হাঁটতে পারতেন না বলে বিছানাতে শুয়ে-বসে দিন কেটেছে তাঁর। সম্প্রতি ভর্তি করা হয় উক্ত হাসপাতালে।

১৯৭৩ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত চলচ্চিত্রে শীর্ষ নায়কদের একজন ছিলেন তিনি। ফোক ফ্যান্টাসি আর অ্যাকশন ছবির অপ্রতিদ্বন্দ্বী অভিনেতা ছিলেন তিনি। অভিনয় জীবনে ১৫২টির মতো ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।

তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হলো- দ্য রেইন, ডাকু মনসুর, জিঘাংসা, কে আসল কে নকল, বাহাদুর, দোস্ত দুশমন, মানসী, দুই রাজকুমার, সওদাগর, নরম গরম, ইমান, রাতের পর দিন, আসামি হাজির, মিস লোলিতা, রাজ দুলারী, চন্দন দ্বীপের রাজকন্যা, লুটেরা, লাল মেম সাহেব, বেদ্বীন, জীবন সাথী, রাজনন্দিনী, রাজমহল, বিনি সুতার মালা, বানজারান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here