না ফেরার দেশে ‘নকল’ মাধব

0
63

ক্যানসারের কাছে হার মানলেন মাধব মোঘ। বড় পর্দায়  যার অভিনয় দর্শকের আনন্দ জুগিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় এসব কৌতুক অভিনয়ের খণ্ডচিত্র নানা সময়ে ভাইরাল হয়েছে।  ‘শোলে’র ‘ঠাকুর’ চরিত্রটির অনুকরণে তাঁর কৌতুক অভিনয় অনেক দর্শকের মনে থাকার কথা।  মঞ্চে সেই মানুষ আর হাসাবেন না।  তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর। গতকাল রোববার নিজের বাসভবনেই শেষনিশ্বাস ত্যাগ করেন অনেক বলিউড ছবিতে অভিনয় করা এ শিল্পী।

মাধব মোঘের ফুসফুসে বাসা বেঁধেছিল ক্যানসার; একেবারে শেষ পর্যায়ে ধরা পড়েছিল রোগটি। মুম্বাইয়ের বোম্বে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি। চিকিৎসকেরা একপর্যায়ে আশা ছেড়ে দেন। চিকিৎসকদের সঙ্গে আলোচনা করে গত শনিবার মাধব মোঘেকে তাঁর বাড়িতে ফিরিয়ে নেওয়া হয়। সেখানেই গতকাল মারা যান তিনি।

দীর্ঘদিন ধরে বলিউডের বিভিন্ন ছবিতে অভিনয় করেছেন মাধব মোঘে। ছোট ছোট চরিত্র হলেও অভিনয়ের মুনশিয়ানার জোরে আলাদা করা যেত তাঁকে। তাঁর অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ‘দামিনী’, ‘ঘাতক’, ‘পার্টনার’, ‘ম্যায়নে পেয়ার কিউ কিয়া’ ইত্যাদি। নব্বইয়ের দশকে শচীন পিলগাঁওকরের সঞ্চালনায় ছোট পর্দার জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘এক দো তিন’-এ তাঁর কৌতুক অভিনয় সাড়া ফেলে।

সব ছাপিয়ে প্রয়াত অভিনেতা সঞ্জীব কুমারের অনুকরণে অভিনয়ে করে পরিচিতি পেয়েছিলেন মাধব মোঘে। এ ছাড়া অভিনেতা রাজকুমার ও উৎপল দত্তের কণ্ঠ নকল করেও অভিনয় করতেন তিনি।

ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল ও ভারতের বাইরেও তাঁর ‘মিমিক্রি’র জনপ্রিয়তা পায়। সঞ্চালক হিসেবেও নাম করেছিলেন মাধব মোঘে। ভারতীয় অনেক রিয়্যালিটি শো ও মঞ্চে সঞ্চালকের ভূমিকায় দেখা যেত তাঁকে।

মাত্র ২০ দিন আগে মারা যান মাধব মোঘের স্ত্রী। দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন তাঁর স্ত্রী। হিন্দুস্তান টাইমসকে প্রয়াত মাধব মোঘের মেয়ে প্রাচী মোঘে জানান, মায়ের মৃত্যুর পরই তাঁর বাবা ভীষণভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। খাওয়া দাওয়া প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তাঁর শরীরও ক্রমে দুর্বল হয়ে পড়ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here