পরীমনি গ্রেফতারে চুপ কেন সতীর্থরা ? (ভিডিও)

আলোচিত নায়িকা পরীমণিকে আটক করা হয়েছে। বুধবার (৪ আগস্ট) সন্ধ্যায় বনানীর বাসা থেকে তাকে আটক করে রাত আটটার পরে তাকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয় র‍্যাব হেডকোয়ার্টারে। পরীর সঙ্গে আরও দুজনকে আটক করা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে কোনও সমিতি, শিল্পী ও সতীর্থকে তেমন একটা কথা বলতে দেখা যায়নি সোশ্যাল হ্যান্ডেলে। নিজ সংগঠনের অন্যতম তারকা সদস্যের এমন অবস্থায় তারা কী ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন বা ভাবছেনশিল্পী সমতর সাধারন সম্পাদক, সভাপতি?


 
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও উল্লেখযোগ্য তেমন কেউ পক্ষে বা বিপক্ষে কথা বলতে দেখা যায়নি পরীকে নিয়ে। 

নাট্যকার মাসুম রেজা তার ফেসবুক প্রোফাইলে লিখেছেন, ‘অভিযানে যারা গ্রেফতার হচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ- তারা মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করছেন শিল্পী পরিচয়ে। আমরা শিল্পীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ করেছিলাম, যে কাউকে শিল্পী বলা যাবে না! কিন্তু এবারে পরীমণির বাড়িতে এই অভিযান দেখে কীভাবে অস্বীকার করবো তিনি শিল্পী নন?’

অভিনয় সংঘের সাধারন সম্পাদক নাসিম বলেছেন, ‘দেখুন আমাদের বক্তব্যে ভুল বুঝেছেন অনেকেই। পরীমণি যে চিত্রনায়িকা বা মডেল বা অভিনয়শিল্পী- সেটা তো গোটা বাংলার সবাই জানে। আমাদের বক্তব্য হলো, যাদেরকে তেমন কেউ চেনে না, যারা এক দু’টি অনুল্লেখযোগ্য কাজ হয় তো করেছে- তাদের বিষয়ে। আমার মনে হয় এই বিষয়টি আরও স্পষ্ট করার জন্য আমাদের একসঙ্গে বসতে হবে। ভুল বোঝাবুঝির সুযোগ দেওয়া ঠিক হবে না। কারণ দিন শেষে, আমরা এক পরিবারের।’

পরীমণিকে আটকের বিষয়ে অভিনয় শিল্পী সংঘ আলাদা করে কিছু বলছে না। কারণ, পরী এই সংঘের সদস্য নন। অন্যদিকে পরীর মূল সংগঠন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দুই নেতা মিশা সওদাগরের ফোন বন্ধ আর জায়েদ খান কোনো কথা বলছেন না।  

আরেক নির্মাতা আফজাল হোসেন মুন্না লিখেছেন বেশ গভীরে, ‘‘এখন আবার চিৎকার করে ওঠেন, ‘পরিমণি কে? তাকে চিনি না, ওরা করা?’ সবার গলায় গলায় শিল্পী লেখা কাগজ ঝুলিয়ে দিয়েছেন তো আপনারাই! এগুলো সবই করতে পারেন অথচ সহজ ও সুন্দর করে বলতে পারেন না যে, অনেকে অ্যাক্টর, মডেল, পারফর্মার এগুলো করতেই পারে, তবে সবাই শিল্পী নয়। বলা শুরু করুন, প্রতিটা পেশায় ক্রিমিনাল থাকতে পারে বা নিপাট ভদ্রলোকটিও ক্রাইম করতে পারে। তার সাথে তার প্রফেশনের সম্পর্ক নাই। পরিশেষে বলতে চাই, যখন অহেতুক আহত-নিহত হওয়া বন্ধ করবেন, তখনই অন্য পেশাজীবীদের বলতে পারবেন যে, ফিকশনে মন্দ ক্যারেকটার যে পেশারই হোক বা চরিত্রের প্রয়োজনে যা বলুক তা নিয়ে আহত হবার কিছু নেই। ধন্যবাদ। আর হ্যাঁ, বিচারকার্য শেষ হবার আগে শিল্পী হোক কী অ-শিল্পী- কাউকে কদর্য বিশেষণে বিশেষায়িত কইরেন না।’’

নাট্যকার নির্মাতা শিমুল সরকার ক্ষোভ প্রকাশ করে ফেসবুকে লিখেছেন :

২০১০ সালের কথাআমার একটি ধারাবাহিক নাটকে একজন নতুন মেয়েকে সুযোগ দিলাম। মাত্র গ্রাম থেকে এসে একটি বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছে সে। তাকে নিয়ে বেশ বিপদেই পড়লাম। অভিনয়ের কিছুই বুঝে না সে। তাও আবার কো এক্টর ফজলুর রহমান বাবু, এটিএম শামসুজ্জামান, শামীমা নাজনীন, ডাক্তার এজাজ এর মত জাঁদরেল শিল্পীরা। বাবু ভাই আর এজাজ ভাই আমাকে খুব ক্ষেপিয়েছেন একান্তে যখন এক টেক ২০ বার নিতে হয়েছে। বাবু ভাই একদিন বলেই ফেললেন আমাকে, তোমার তো কোন বাজে অভ্যাস নাই, এই মাইয়ারে কেন সুযোগ দিলে? আমি তাকে আমার উত্তরে সন্তুষ্ট করতে পারিনি। বিজ্ঞাপন করার সুবাদে তার পরিচিতি তৈরি হয়েছিল এবং বিজ্ঞাপনটা ছিল বড় একটা ফোন কোম্পানির। এটাই হলো তাকে কাস্টিং দেয়ার বলতে পারেন কমার্শিয়াল ভাবনা ছিল। তবু সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা যে আমার প্রতি ভালবাসা এবং আস্থা থাকার কারনে হলেও বহু পেইন সহ্য করে গেছেন এবং দীর্ঘ ১০০ পর্ব পর্যন্ত কাজ করেছেন। তার ৫/৬ বছর পরেও আমি মেয়েটাকে কোনো কাস্ট দিলে তার সম্মানী ৪/৫ হাজারের বেশি দিইনি কখনও, বা সে চায় ও নি। মজার ব্যাপার হলো তার নিজস্ব ফ্লাট আছে, এসি রুমে ঘুমায়, এসি গাড়ি চালায় নিজের, এবং রাজধানীর অন্যতম বড় একটি শপিংমলে তার একটা শোরুমও রয়েছে। আর আমি রিক্সায় চড়ে ঘুরি, বা পাবলিক বাসে। সুতরাং পরীমনিদের ধরে কোনো লাভ নেই। পেছনের টাকাওয়ালাদের ধরেন। তাতেই প্রকৃত কাজ হবে। এগুলা আই ওয়াশে কাম হইতো না।

পরিচালক মাহমুদ হাসান শিকদার পরীমণিকে তথাকথিত নায়িকা আখ্যা দিয়ে ফেসবুকে লিখেছেন, ‌‘একজন তথাকথিত নায়িকা কিংবা নামধারী মডেলকে গ্রেফতার করার জন্য লাখে লাখে অস্ত্রধারী সৈন্যের সিনেম্যাটিক তৎপরতা সেই সাথে একখানা ফটো তোলার জন্য আমাদের সাংবাদিক ভাইদের যে প্রাণপণ প্রচেষ্টা বেশ উপভোগ করছি!’

সাম্প্রতিক সময়ে পরীমণির বিপদের বন্ধু নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরীকেও এদিন কোথাও দেখা যায়নি। যিনি গত জুন মাসের ঘটনায় পরীর সঙ্গে ছাতা হয়ে ছিলেন সারাক্ষণ। বাসা থেকে ছুটেছেন ডিবি অফিস পর্যন্ত।

পরীমণির সঙ্গে কাজ করা সব সহশিল্পীরাও নিশ্চুপ। কিন্তু এই চুপ থাকার রহস্যটা আসলে কী সেটাই সচেতন সাধারন জনগনের প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here