যেভাবে উন্নতির শিখরে মালয়ালম ছবি

যেভাবে উন্নতির শিখরে মালয়ালম ছবি

ভারত থেকে সর্বশেষ অস্কারে প্রতিনিধিত্ব করেছে মালয়ালম ছবি ‘জাল্লিকাট্টু’। আবহ সংগীত, চিত্রনাট্য, লোকেশন আর সুন্দর গল্পের মালয়ালম ছবির উন্নতি এক দিনে হয়নি, হাতে হাত রেখে এগিয়ে চলছে এই ইন্ডাস্ট্রি। মালয়ালম সুপারস্টার পৃথ্বীরাজ সুকুমারন গত মাসে ইউটিউব চ্যানেল ‘ফিল্ম কম্পানিয়ন’-এ অনুপমা চোপড়ার সঙ্গে ভার্চুয়ালি মুখোমুখি হয়েছিলেন। মালয়ালম ছবি ইন্ডাস্ট্রি, সেখানকার তারকা, ফিল্মমেকার ও তাঁর নিজের সম্পর্কে অসাধারণ কিছু তথ্য দিয়েছেন পৃথ্বীরাজ, যা শুনলে বুঝতে বাকি থাকবে না এই ইন্ডাস্ট্রি কীভাবে প্রতিদিন নিজেদের উন্নতি করছে। আরও কয়েকজন তারকার সাক্ষাৎকার ঘেঁটে ইন্ডাস্ট্রির বর্তমান সময়কে ধারণ করা হলো।

পৃথ্বীরাজ সাক্ষাৎকারে বলেন, তাঁর কোনো ম্যানেজার বা পিআর টিম নেই। এই যুগে এটা কি আদৌ সম্ভব—এমন প্রশ্ন ছোড়েন উপস্থাপিকা। জবাবে পৃথ্বীরাজ বলেন, ‘ম্যানেজার রেখে কথা আদান-প্রদান তাঁর কাছে জটিল মনে হয়। অবসর থাকলে সাক্ষাৎকার তো বটেই, অন্য যেকোনো আবদারে নিজে থেকেই সাড়া দিই।’ ফাহাদ ফাসিল বলেন,‘ ইন্ডাস্ট্রির মানুষেরা এতটাই কাছের যে আজ না পারলে কাল কথা বলব। আমাদের সেই আত্মিক সম্পর্ক আছে; দুদিন পর হলেও আমরা বসব। আমরা আসলে ছবির সঙ্গেই উঠি, বসি, ঘুমাই। বিশ্রাম বলতে তেমন কিছু নেই।’


(ওপরে বাঁ থেকে) পার্বতী থিরুভথু, নাজরিয়া নাজিম, সাই পল্লবী (নিচে বাঁ থেকে) নিথিয়া মেনন, অনুপমা পরমেশ্বরন, ঐশ্বরিয়া লক্ষ্মী। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

মালায়লাম ইন্ডাস্ট্রির কিংবদন্তি সিনিয়র তারকারাসহ পুরো ইন্ডাস্ট্রি এখন একসঙ্গে বদ্ধপরিকর ভালো ছবি উপহার দেওয়ার জন্য। তাঁদের কাছে এখন সবকিছুর ঊর্ধ্বে মালয়ালম ছবি। কিন্তু এ তো যেকোনো ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রেই সত্য। প্রতিটি ইন্ডাস্ট্রির কলাকুশলী ও তারকারাই তো চান তাঁদের ইন্ডাস্ট্রি রাজ করুক। কিন্তু মালয়ালম আলাদা হয়েছে আরেক জায়গায়। এই চাওয়াকে বাস্তবে রূপ দিতে তাঁরা যা করছেন, সেখানেই আছে সাফল্যের সূত্র। নিজেদের মধ্যকার সম্পর্কটি ব্যাখা করতে গিয়ে পৃথ্বীরাজ বলেন, কোনো স্ক্রিপ্ট তাঁদের কারও কাছে এলে তাঁর যদি মনে হয়, এতে তাঁর চেয়ে অন্য কেউ ভালো করবেন, তবে তিনি স্ক্রিপ্টটি সেই নায়ক ও পরিচালকের মধ্যে সেটিং করিয়ে দেন নিজে থেকেই। তিনি এ সময় উদাহরণস্বরূপ ফাহাদ ও দুলকারের ব্যাপারে জানান, তাঁরা এভাবে অনেক ছবি আদান-প্রদান করেছেন। তা ছাড়া ইন্ডাস্ট্রির মানুষেরা নিয়মিত বসেন, ছবি নিয়ে ভাববিনিময় করেন।

বেশির ভাগ অভিনয়শিল্পী শুধু অভিনয় নয়, ছবির বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে যুক্ত। অভিনয়ের পাশাপাশি কেউ নির্মাণ করছেন। স্টাররা নিয়মিত লগ্নি করছেন। সেখানে নতুন অভিনয়শিল্পী পরিচালকদের সুযোগ দিচ্ছেন।

ভারতীয়, বিশেষ করে দক্ষিণের বিভিন্ন গণমাধ্যম বহুদিন অনুসরণ করলেও মালয়ালম ইন্ডাস্ট্রির তারকাদের নিয়ে তেমন কোনো গুঞ্জন-গুজব পাওয়া যায়নি। কাজের খবরই বেশি। এমনকি বর্তমান সময়ের সেখানকার স্টার সুপারস্টার নায়ক-নায়িকারা বেশির ভাগই বিবাহিত।


(ওপরে বাঁ থেকে) মোহনলাল, মামুত্তি, পৃথ্বীরাজ সুকুমারন (নিচে বাঁ থেকে) ফাহাদ ফাসিল, দুলকার সালমান, নিভিন পৌলি। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

একতার আরেকটি উদাহরণ পাওয়া যায় দুলকার সালমানের কথায়। অল্প সময়ে ছবি তৈরি করে মালয়ালম ইন্ডাস্ট্রি। যার ফলে বাজেট বেশ কম হয়। তাঁদের ছবি সাধারণত ৫০ দিনের বেশি হয় না।

পৃথ্বীরাজের হাতে এখন ৩০টির বেশি প্রজেক্ট আছে। এর মধ্যে কোনোটার প্রযোজক তিনি, কোনোটায় অভিনয় করবেন, কোনো ছবি পরিচালনা করবেন। এত কাজ করার পেছনে কারণ ও কীভাবে তা করেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতি ছবির পর ১০-১৫ দিনের ছুটি কাটানো ছাড়া সারা বছরই তিনি ছবি করেন। তিনি বলেন, ছবির প্রতি তাঁর প্যাশন এতটাই যে, তিনি হিট-ফ্লপের তোয়াক্কা না করে শুধু কাজ করে যান। মোহনলাল, মামুত্তি, ফাহাদ ফাসিল, দুলকার সালমান কিংবা পার্বতী, সাই পল্লবীদের হাতে রয়েছে একাধিক ছবি।

পৃথ্বীরাজর পরিচালনায় অভিনয় করেছেন মালয়ালমের সবচেয়ে বড় সুপারস্টার মোহনলাল। পৃথ্বীরাজ জানান, পর্দার বাইরে তাঁকে ‘বাবা’ (ছেলেকে যেভাবে বলে) বলে ডাকলেও সেটে তিনি তাঁকে ‘স্যার’ বলেন। মোহনলাল এত বছর কাজ করতে করতে এতই পেশাদার এক মানুষে পরিণত হয়েছেন যে, তাঁর মুখের ওই ‘স্যার’ ডাকটা লোকদেখানো নয়; বরং এক অভ্যাস। বললেন, ‘পরিচালক হিসেবে যদি তাঁর মতো কিংবদন্তি অভিনেতাকে আমি দশবারও টেক নিই; তিনি কখনো না তো করেনই না, বরং তাঁকে ‘স্যার’ বলে আবার টেক দেন। এটাই তাঁর পদ্ধতি।

বর্তমান সময়ের আলোচিত পাঁচ

ছবি

চার্লি

ব্যাঙ্গালোর ডেইজ

প্রেমাম

এন্নু নিনতে মইদিন

দৃশ্যম


(ওপরে বাঁ থেকে) লাল জোস, শ্যামাপ্রসাদ,অঞ্জলি মেনন (নিচে বাঁ থেকে) আনোয়ার রশিদ, জিতু জোসেফ, আশিক আবু। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

পরিচালক

লাল জোস, আনোয়ার রশিদ, অঞ্জলি মেনন, জিতু জোসেফ, আশিক আবু

অভিনেতা

মোহনলাল, মামুত্তি, দুলকার সালমান, ফাহাদ ফাসিল, পৃথ্বীরাজ সুকুমারন

অভিনেত্রী

পার্বতী থিরুভথু, নাজরিয়া নাজিম, সাই পল্লবী, ঐশ্বরিয়া লক্ষ্মী, অনুপমা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here