রঙের মানুষকে অতিক্রম করা একজন নাট্যযোদ্ধা (ভিডিও)

রঙের মানুষকে অতিক্রম করা একজন নাট্যযোদ্ধা (ভিডিও)

দেশের প্রখ্যাত নাট্যকার, ঔপন্যাসিক, নাট্য নির্দেশক মাসুম রেজার জন্মদিন আজ। মাসুম রেজা ১৯৬৩ সালের ২৫ ডিসেম্বর  কুষ্টিয়া সদর উপজেলার কালিশংকরপুরের পুরাতন কাটাইখানা মোড়ে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

 শৈশবে কবি হওয়ার প্রচণ্ড ইচ্ছে থেকেই লেখালেখি শুরু করেন মাসুম রেজা। কিন্তু সংস্কৃতি অঙ্গনের সব জায়গাতেই ছিলো সমান আগ্রহ। আর এ কারণে সেই শৈশবেই যোগ দেন কুষ্টিয়ার স্থানীয় নাট্যদল ‘বোধন’ এ। লেখাপড়ার সূত্রে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়েই গড়ে ওঠে তার নাট্যবলয়। এরপর ঢাকায় এসে কয়েকজন সমমনা বন্ধু নিয়ে গড়ে তোলেন দেশ নাটক। একের পর এক দর্শক নন্দিত নাটক উপহার দিয়ে খুব সহজেই পেয়ে যান বিশাল ভক্ত গোষ্ঠী। টেলিভিশনে রঙের মানুষ নাটকটির মধ্যে দিয়ে পৌঁছে যান জনপ্রিয়তার তুঙ্গে।

মাসুম রেজার প্রথম নাটক ১৯৭৯ সালে চাঁদ আলীর উপর রচিত পথ নাটক। প্রথম পূর্ণ মঞ্চ নাটক হল বিরসা কাব্য। তার রচিত প্রথম টেলিভিশন নাটক কৈতর। ১৯৯৬ সালে প্রচারিত নাটকটি পরিচালনা করেন সালাউদ্দিন লাভলু।

২০০০ সালে দেশ নাটকের প্রযোজনায় তার রচনায় এবং নির্দেশনায় মঞ্চস্থ হয় নিত্যপুরাণ। এই নাটকে তিনি মহাভারতের চরিত্র একলব্যকে কেন্দ্রীয় চরিত্রে নিয়ে আসেন। ২০০১ সালে মেঘলা আকাশ চলচ্চিত্রের কাহিনী ও সংলাপ রচনা করেন। ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন এবং পরিচালনা করেছেন নারগিস আক্তার। ২০০৩-০৪ সালে সেলিম আল দীন এবং তার যৌথ রচনায় রঙের মানুষ ধারাবাহিক নাটকটি জনপ্রিয়তা লাভ করে। এই নাটকের জন্য তিনি সেলিম আল দীনের সাথে যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ নাট্যকার বিভাগে বাচসাস পুরস্কার লাভ করেন। তার অন্যান্য উল্লেখযোগ্য টেলিভিশন নাটক হল সেকু সেকান্দর, ছায়া ঘড়ি, দিচক্রযান, এবং বিজমন্ত্র। ২০০৪ সালে তিনি তার মঞ্চ দল দেশ নাটকের জন্য রচনা করেন জল বালিকা এবং বাঘাল। তার রচিত ও নির্দেশিত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য মঞ্চ নাটক হল আরজ চরিতামৃত, শামুকবাস। ২০০৫ সালে তিনি মোল্লা বাড়ীর বউ চলচ্চিত্রের কাহিনী ও চিত্রনাট্য রচনা করেন। ছবিটি পরিচালনা করেন সালাউদ্দিন লাভলু। এই বছর তার রচনায় তাহের শিপন পরিচালনায় মেঘ রং মেয়ে টেলিভিশন নাটকটি এনটিভিতে প্রচারিত হয়। ২০০৬ সালে তার রচিত মধুময়রা টেলিভিশন নাটকটির জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ নাট্যকারের জন্য মেরিল-প্রথম আলো সমালোচক পুরস্কার লাভ করেন।

২০১০ সালে তিনি ঔপন্যাসিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। এ বছর ফেব্রুয়ারিতে তার রচিত মীন কন্যাদ্বয় এবং গোলকিপার উপন্যাস দুটি অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়। তিনি ২০১৫ সালে বাপজানের বায়স্কোপ চলচ্চিত্রের কাহিনী, সংলাপ এবং রিয়াজুল রিজুর সাথে যৌথভাবে চিত্রনাট্য রচনা করেন। ছবিটির জন্য তিনি ৪০তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার এবং রিয়াজুল রিজুর সাথে যৌথভাবে শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার বিভাগে পুরস্কার লাভ করেন।

২০১৬ সালে তিনি টেলিভিশন নাট্যকার সংঘের প্রথম সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ বছর তার রচনায় এবং সালাউদ্দিন লাভলুর পরিচালনায় দ্য ভিলেজ ইঞ্জিনিয়ার টেলিভিশন ধারাবাহিক আরটিভিতে প্রচারিত হয়। ২০১৭ সালে তিনি সুরগাও মঞ্চ নাটকের নির্দেশনা করেন। নাটকটি একজন বৃদ্ধের গল্প। তিনি গ্রামের সবাইকে, এমনকি অপরাধীকেও বাঁশি বাজানো শেখান। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যমঞ্চে মঞ্চস্থ এই নাটকের মাধ্যমে নিত্যপুরাণ নির্দেশনার দীর্ঘ ১৭ বছর পর মঞ্চ নাটক নির্দেশনায় ফিরে আসেন।

আজ ২৫ ডিসেম্বর । দেশের প্রখ্যাত এই নাট্যকার, ঔপন্যাসিক ও নাট্য নির্দেশক মাসুম রেজার জন্মদিনে বিনোদন প্রতিদিন পরিবারের পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here