শাকিব খানকে অনুদান দিতে হবে কেন! (ভিডিও)

সরকারি অনুদানের পরিমাণ কমছে ইতিহাস-ঐতিহ্য আর সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে নির্মিতব্য চলচ্চিত্রের পক্ষে। বিশেষ করে প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণে সরকারি অনুদানের বাজেট এখন শূন্যের কোঠায়! তাই প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতারা বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ ও হতাশ। তারা স্পষ্ট ভাষায় বলছেন, শাকিব খান, অপু বিশ্বাসকে কেন সরকারি অনুদান দিতে হবে! 

সোমবার (৪ জুলাই) শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে জাতীয় চলচ্চিত্র অনুদান প্রক্রিয়ায় অসঙ্গতির প্রতিবাদে চলচ্চিত্রকর্মী সমাবেশে অনুদান নীতিমালা কমিটির বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরা হয়। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট ৩৪টি সংগঠন এই সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশে চলচ্চিত্র নির্মাতা নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, ‘সরকারের অনুদানের লক্ষ্য হওয়া উচিত শিল্পসম্মত চলচ্চিত্র নির্মাণ, বাণিজ্যিক নয়। প্রথম হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধ, দ্বিতীয় হচ্ছে বাঙালি সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, আমাদের সামগ্রিক অবস্থা প্রাধান্য দেবে যে চলচ্চিত্র সেগুলোকেই সরকার অনুদান দেবে। এটা হচ্ছে মূল কথা।’ 

নির্মাতা মানজারে হাসিন মুরাদ বলেন, ‘বাণিজ্যিক সিনেমা নির্মাণের জন্য ব্যাংক থেকে নানান ফান্ডিংয়ের জায়গা আছে। কিন্তু জনগণের টাকায় বাণিজ্যিক সিনেমা নির্মাণ করা হবে, সেটা ঠিক হবে না। আমরা বাণিজ্যিক সিনেমার বিরুদ্ধে না। কিন্তু সরকারি অনুদানে হবে শিল্পসম্মত সিনেমা। শাকিব খান, অপু বিশ্বাস কি নিজ অর্থায়নে চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে পারেন না? তাদের অনুদান দিতে হবে কেন!’

জাহিদুর রহিম অঞ্জন বলেন, ‘শর্ট ফিল্ম ও প্রামাণ্যচিত্রের জন্য একটি কমিটি হোক। তারা যাচাই করে অনুদান দেবে। এতে যদি দশটি প্রামাণ্য ছবিতে অনুদান দেওয়া লাগে দিতে হবে।’ 

সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন ঢাবি চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি সিয়ান শাহরিয়ার আলমগীর, বাংলা প্রামাণ্যচিত্র পর্ষদের সদস্য ভ্রাত্য আমিন, চলচ্চিত্র নির্মাতা হুমায়রা বিলকিস, ফরিদুর রহমান, আবু সাইদসহ অনেকে। 

সমাবেশে প্রতিবাদী গান পরিবেশন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ সদস্যরা। সমাবেশে দুটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। উত্থাপন করা হয় প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণে সরকারি অনুদান নিশ্চিতসহ ১০টি প্রস্তাবনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here