হলি আর্টিজানের ঘটনা নিয়ে এবার সিনেমা নির্মিত হচ্ছে বলিউডে

faraaz | picture from internet

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানে অবস্থিত হলি আর্টিজানে জঙ্গী হামলার ঘটনায় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলো পুরো দেশ। ঘটনাটি বহির্বিশ্বেও শোকের ছায়া ফেলেছিলো। এবার সেই ঘটনা নিয়ে নির্মিত হচ্ছে সিনেমা। তবে সেটি বাংলাদেশে নয়, বলিউডে। ছবিটির নাম রাখা হয়েছে ‘ফারাজ’।

যার নামানুসারে এই সিনেমার নাম রাখা হয়েছে, সেই ফারাজ আইয়াজ হোসেন হলি আর্টিজানে জঙ্গীদের হামলার শিকার হয়ে প্রাণ দিয়েছিলেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়াতে অবস্থিত এমরি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন তিনি। দুর্ঘটনার সময় ফারাজ গ্রীষ্মকালীন ছুটিতে ঢাকায় এসেছিলেন।

ছবিটি নির্মাণ করছেন হানসাল মেহতা এবং প্রযোজনায় রয়েছে অনুভব সিনহা ও ভূষণ কুমার। এতে অভিনয় করছেন আদিত্য রাওয়াল।

বুধবার সকালে ছবিটির ঘোষণা দেন নির্মাতা। টি সিরিজের ফেসবুক পেইজে ছবিটির ফার্স্ট লুক শেয়ার করে এমনটাই জানানো হয়।

নির্মাতা হানসাল মেহতা জানান, ‘ফারাজ’ গভীর মানবতার গল্প, যে ঘটনটা ২০১৬ সালে বাংলাদেশে ঘটে গিয়েছিলো সেটার উপর ভিত্তি করেই সিনেমাটি হবে। গত কয়েক বছর ধরেই এ গল্পটি আমার হৃদয়ের কাছে রেখেছি।

আমি আনন্দিত যে অভিজ্ঞতা এবং ভূষণজি এই গল্পটিকে সমর্থন করছেন এবং আমাকে এই সিনেমাটি ঠিক সেইভাবেই তৈরি করতে সক্ষম করেছেন যেভাবে আমি কল্পনা করেছি।

জাহান কাপুর

মেহতা এক বিবৃতিতে বলেন, আমি এই চলচ্চিত্র দেখার জন্য বিশ্বকে খুব বেশিদিন অপেক্ষায় রাখতে চাই না। সেই রাতে কী ঘটেছিলো তারই গভীরতা দেখবে দর্শক এখানে।

এই সিনেমার মধ্য দিয়ে সিনেমায় অভিষেক ঘটতে যাচ্ছে প্রয়াত অভিনেতা শশী কাপুরের নাতি ও কারিনা কাপুর খান এর চাচাতো ভাই জাহান কাপুরের। আরও অভিনয় করবেন পরেশ রাওয়াল ও স্বরূপ সম্পাতের ছেলে আদিত্য রাওয়াল, যিনি গত বছর জি ফাইভের “বামফাদ” সিনেমা দিয়ে অভিনয় শুরু করেন।

ভাইকে নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন কারিনা কাপুর খান। সামাজিক মাধ্যমে তিনি লেখেন, তোমাকে নিয়ে আমরা গর্বিত। বড় পর্দায় তোমাকে দেখার অপেক্ষা আর সহ্য হচ্ছে না।

প্রযোজক সিনহা বলেন, ছবিটি শুধু সন্ত্রাস ও ক্ষতির গল্প নয়, আশা ও বিশ্বাসেরও।

ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে গত জুন মাস থেকে। তবে ছবিটি কবে মুক্তি দেওয়া হবে সে বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। সিনেমাটি যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে সিনহার বেনারস মিডিয়াওয়ার্কস, টি-সিরিজের সঙ্গে মহানা ফিল্মসের সাহিল সাইগাল, সাক্ষী ভট্ট এবং মাজাহির মন্দাসৌরওয়ালা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here