হানিফ সংকেতের ‘রটে বটে-ঘটে না’

প্রতি বছর দুই ঈদে দুটি নাটক নির্মাণ করেন তিনি। বরাবরের মতো এবারও তার নাটকের নাম বেশ ব্যতিক্রমী এবং ছন্দময়। শুধু নামই নয়, তার গল্পেও পাওয়া যায় আলাদা স্বাদ ও বৈচিত্র্য। পাশাপাশি নাটকে থাকে একটি সামাজিক বক্তব্য। যে কারণে হানিফ সংকেতের নাটক দেখার জন্য দর্শকদের বাড়তি আকর্ষণ থাকে। প্রতিবারের মতো এবারও ঈদের নাটক নির্মাণ করেছেন বরেণ্য নির্মাতা হানিফ সংকেত। নাটকের নাম ‘রটে বটে-ঘটে না’। 

ইদানীং অধিকাংশ নাটকে বাবা-মা’কে খুঁজে পাওয়া না গেলেও হানিফ সংকেতের অধিকাংশ নাটকেই থাকে বাবা-মা’র দরকারি চরিত্র। থাকে পারিবারিক ও সামাজিক চিত্র। নাটকের নাম সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি ছন্দে ছন্দে বলেন, ‘রটে বটে অনেক কিছুই, খুঁজলে আসল ঘটনা, আপনজনে বুঝতে পারে, কোনটা মিথ্যে রটনা।’

অনেক কিছু রটে বটে কিন্তু ঘটে না। একটি পরিবারের একমাত্র সন্তান সম্পর্কে নানান রটনা এবং তা থেকে অনেক ঘটনার জন্ম নেয়। সমসাময়িক এই নাটকটির বিভিন্ন দৃশ্যে বন্যায় অসহায় মানুষের ভোগান্তি, সামাজিক মূল্যবোধ ও বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা ফুটে উঠেছে, জানান হানিফ সংকেত।

নাটকটি ধারণ করা হয় মিরপুরের ফাগুন অডিও ভিশনের নিজস্ব কমপ্লেক্সে। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন আবুল হায়াত, দিলারা জামান, শহীদুজ্জামান সেলিম, তানিয়া আহমেদ, ইরফান সাজ্জাদ, সোলায়মান খোকা, সুভাশিষ ভৌমিক, কাজী আসাদ, জিল্লুর রহমান, জাহিদ শিকদার, মতিউর রহমান মতি, আনোয়ার শাহী, সাজ্জাদ সাজু, মোনালিসা দিপা, নজরুল ইসলামসহ অনেকে। 

নাটকের সূচনা সংগীতের কথা লিখেছেন মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর করেছেন হানিফ সংকেত, সংগীতায়োজন করেছেন মেহেদী, কণ্ঠ দিয়েছেন পুলক অধিকারী ও রিয়াদ। নাটকটি রচনা ও পরিচালনা করেছেন হানিফ সংকেত। প্রচার হবে ঈদের দিন রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে, এটিএন বাংলায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here