৯ দিনে ২২৫টি চলচ্চিত্র

৯ দিনে ২২৫টি চলচ্চিত্র

শুরু হতে যাচ্ছে ২০তম ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। ১৫ই জানুয়ারি শুরু হয়ে উৎসব চলবে ২৩শে জানুয়ারি পর্যন্ত। ৯দিনে ৭০টি দেশের ২২৫টি ছবি দেখানো হবে এবারের উৎসবে। এর মধ্যে এশিয়ান ফিল্ম কম্পিটিশনে ২১টি, রেট্রোস্পেকটিভে ৫টি, ট্রিবিউটে ২টি, বাংলাদেশ প্যানোরমাতে ৯টি, ওয়াইড অ্যাঙ্গেলে ৬টি, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ডে ৪৭টি, উইমেন ফিল্মমেকারস সেকশনে ২৭টি, স্পিরিচুয়াল সেকশনে ২৯টি, চিলড্রেন ফিল্ম সেশনে ১৮টি, শর্ট অ্যান্ড ইনডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম সেকশনে ৬১টি ছবি দেখানো হবে।

উৎসব পরিচালক আহমেদ মুজতবা জামাল জানান, ছবি বাছাইয়ের ক্ষেত্রে স্বাধীন ও সৃজনশীল নির্মাতাদের ছবিকে প্রাধান্য দিয়েছে উৎসব কর্তৃপক্ষ। তিনি বলেন, ‘সব ছবি যে একই মানের হবে এমনটি নয়। তবে আমরা বিশেষভাবে ইনডিপেন্ডেন্ট ও আর্টিস্টিক ছবিকেই গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করেছি।’

উৎসবে উদ্বোধনী ছবি হিসেবে প্রদর্শিত হবে মারি ইভানোভার প্রথম ছবি ‘দ্য অ্যাঙ্গার’। এ বছর বিভিন্ন উৎসবে প্রদর্শিত ও পুরস্কারপ্রাপ্ত ছবি আছে। বাংলাদেশ প্যানোরমা শাখায় দেখা যাবে বাংলাদেশের বেশ কিছু আলোচিত ও নতুন ছবি। আছে সাইদুল আনাম টুটুলের ‘কালবেলা’, নূরুল আলম আতিকের ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’, প্রসূন রহমানের ‘ঢাকা ড্রিম’, শবনম ফেরদৌসীর ‘আজব কারখানা’, এন রাশেদ চৌধুরীর ‘চন্দ্রাবতী কথা’ ইত্যাদি।

এ বছর নতুন একটি শাখা খোলা হয়েছে ওয়াইড অ্যাঙ্গেল নামে। এই শাখায় দেখানো হবে জার্মানিপ্রবাসী বাংলাদেশি চলচ্চিত্রকার শাহীন দিল-রিয়াজের ছয়টি প্রামাণ্য চলচ্চিত্র।

এবারেও থাকছে ‘চলচ্চিত্রে নারীর ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনার। জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নন্দন মঞ্চ, জাতীয় চিত্রশালা ও জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তন, আলিয়ঁস ফ্রঁসেজে উৎসবের ছবি দেখা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here